বিড়ম্বনা এড়াতে হজ ও ওমরাহ নীতিতে পরিবর্তন

জাতীয় শীর্ষ
ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান সংসদকে জানিয়েছেন, বাংলাদেশ বিমানের ফ্লাইট সিডিউল অনুযায়ী হজ এজেন্সিসমূহ কর্তৃক যথাসময়ে টিকিট সংগ্রহ না করা এবং বিমান কর্তৃপক্ষ কর্তৃক টিকিট সংগ্রহের বাধ্যবাধকতা আরোপ না করায় বিগত সময়ে ফ্লাইট সিডিউল পরিবর্তন হয়েছে। কোনো কোনো ক্ষেত্রে ফ্লাইট বাতিল হয়েছে। হজ যাত্রীদের এই অসুবিধা লাঘবে এ বছর জাতীয় হজ ও ওমরাহ নীতিতে পরিবর্তন আনা হয়েছে। ফলে এ বছর হজে এই ধরনের বিড়ম্বনা এড়ানো সম্ভব হবে বলে আশা করা যায়। গতকাল বুধবার সংসদে টেবিলে উপস্থাপিত প্রশ্নোত্তরে সংরক্ষিত আসনের সদস্য মাহজাবিন খালেদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী একথা জানান।
ধর্মমন্ত্রী জানান, ওই নীতির অনুচ্ছেদ ১০দশমিক ৯ অনুযায়ী হজ ফ্লাইট পরিচালনার লক্ষ্যে এয়ারলাইন্সসমূহ সকল টিকিট বিক্রি/বুকিং সংশ্লিষ্ট হজ এজেন্সির সমসংখ্যক হজ যাত্রীর নামের অনুকূলে বরাদ্দ ও ইস্যু করার এবং তা দৈনিকভিত্তিক অনলাইনে প্রদর্শনের নির্দেশনা রয়েছে।
আওয়ামী লীগের এ কে এম রহমতুল্লাহর এক প্রশ্নের জবাবে মতিউর রহমান সংসদকে জানান, বিগত ২০১৬-১৭ অর্থবছরে সারাদেশের ওয়াক্ফ সম্পত্তি থেকে ওয়াক্ফ চাঁদা আদায়ের পরিমাণ ৬ কোটি ৫২ লাখ ৪৬ হাজার ৪৬৭ টাকা। বর্তমানে ওয়াক্ফ আমানত হিসেবে বিভিন্ন ব্যাংকে ৩৮ কোটি ৪৪ লাখ টাকা জমা আছে। উক্ত আয় থেকে ওয়াক্ফ প্রশাসক, উপ প্রশাসক, সহকারী প্রশাসক ও সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন ভাতাদিসহ সকল সংস্থাপন ব্যয় নির্বাহ করা হয়। এছাড়া বিভিন্ন আদালতে বিচারাধীন মামলা পরিচালনার ব্যয়ও এখান থেকে নির্বাহ করা হয়ে থাকে।

-ফেসবুক কমেন্টস-

মন্তব্য