কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের বিনা খরচে আইনী সহায়তা দেবে সুপ্রিম কোর্ট বার

আইন-আদালত

সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবির প্রতি সমর্থন জানিয়ে তা মেনে নেয়ার আহ্বান জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি। একইসঙ্গে কোটা সংস্কার আন্দোলনে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের উপর পুলিশি হামলার ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছে সমিতি। অন্যদিকে, কোনো ধরনের মামলা-মোকদ্দমা করা হলে অ্যাডভোকেট জামিউল হক ফয়সালের নেতৃত্বে ৩৫ জন আইনজীবী আইনী সহায়তা দিবে বলে জানিয়েছেন। এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে গণমাধ্যমের কাছে এই তথ্য জানান তারা। আজ (মঙ্গলবার) সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি (বার) ভবনের শহীদ সফিউর রহমান মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন- বার সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন। তিনি কোটা সংস্কারের দাবির প্রতি সমর্থন জানান।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, সরকার এই আন্দোলন ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করে আন্দোলনের মূল উদ্দেশ্য ব্যাহত করতে চায়। আলোচনার নামে সময় ক্ষেপন করতে চায়। আমরা মনে করি শিক্ষার্থীদের এই দাবি মেনে নেয়া উচিত, এই দাবির প্রতি আমরা সমর্থন ব্যক্ত করছি। গ্রেফতারকৃতদের মুক্তি ও আহতদের সুচিকিৎসার দাবি জানাচ্ছি।,জয়নুল আবেদীন আরও বলেন, চলমান কোটা সংস্কারের শান্তিপূর্ণ আন্দোলন ও আন্দোলনকারীদের উপর বেপরোয়া লাঠিচার্জ, টিয়ার শেল, রাবার বুলেট নিক্ষেপ করায় এবং পুলিশ এই হামলার সাথে সশস্ত্র ক্যাডাররা যোগ দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। শত শত ছাত্রছাত্রী ও চাকরি প্রার্থী আহত হয়েছে, গ্রেফতার হয়েছে যা মানবাধিকারের লঙ্ঘন। আমরা এই হামলার তীব্র নিন্দা ও সুষ্ঠু নিরপেক্ষ তদন্তের জোর দাবি জানাচ্ছি।

শিক্ষার্থীদের উপর হামলার ঘটনায় সুপ্রিম কোর্টের একজন বিচারপতির নেতৃত্বে তদন্ত কমিটি করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর জড়িত সদস্যদের শাস্তির দাবিও জানিয়েছে আইনজীবী সমিতি। একইসঙ্গে এই ঘটনায় কোনো মামলা হলে বারের পক্ষ থেকে বিনা খরচে মামলা পরিচালনার প্রতিশ্রুতিও দেন সমিতির সভাপতি। সমিতির সম্পাদক বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকন’সহ সমিতির বিএনপিপন্থী অন্য সদস্যরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন। সুপ্রিম কোর্ট বারে ১৪ সদস্যের কমিটিতে সভাপতি-সম্পাদক’সহ ১০টি পদই বিএনপিপন্থীদের দখলে।

-ফেসবুক কমেন্টস-

মন্তব্য